চলতি আবহাওয়া

27°C
27°C
MondayMon
27°C
MondayMon
27°C
MondayMon

সরাসরি প্রশ্নউত্তর

আরো দেখুন
Abdul Wadud জানতে চেয়েছেন
২৯-০৬-২০১৯ ইং অতিরিক্ত কৃষি অফিসার, নকলা, শেরপুর
তরমুজ চাষ সম্পর্কে জানতে চাই?
মোঃ মাশরেফুল আলম উত্তর দিয়েছেন
৩০-০৬-২০১৯ ইং কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার

তরমুজ<img class="" src="http://ais.portal.gov.bd/sites/default/files/files/ais.portal.gov.bd/ekrishi/563064b0_71d9_498a_96d6_2d754b706ee2/water melo.jpg" alt="water melo" title="Water Melon" style="padding: 5px; float: left; width: 300px;">বংশ বিস্তারতরমুজের বংশবিস্তার সাধারণত বীজ দ্বারাই করা হয়ে থাকে।জমি তৈরিপ্রয়োজনমতো চাষ ও মই দিয়ে জমি তৈরি করতে হবে। জমি তৈরির পরম মাদা প্রস্তুত করতে হবে। মাদাতে সার প্রয়োগ করে চারা লাগানো উচিত।বীজ বপন সময়/উৎপাদন মৌসুমবাংলাদেশে ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত আবহাওয়া তরমুজ চাষের উপযোগী। বীজ বোনার জন্য ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম পক্ষ সর্বোত্তম। আগাম ফসল পেতে হলে জানুয়ারি মাসে বীজ বুনে শীতের হাত থেকে কচি চারা রক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। এর জন্য পলি টানেল ব্যবহার করা যায়।বপন/রোপণ পদ্ধতিসাধারণত মাদায় সরাসরি বীজ বপন পদ্ধতি প্রচলিত থাকলেও চারা তৈরি করে মাদাতে চারা রোপণ করাই উত্তম।বীজ বপনসাধারণত প্রতি মাদায় ৪-৫টি বীজ বপন করা হয়। বপনের ৮-১০ দিন আগে মাদা তৈরি করে মাটিতে সার মিশাতে হয়। দু মিটার দূরে দূরে সারি করে প্রতি সারিতে দু মিটার অন্তর মাদা করতে হয়। প্রতি মাদা ৫০ সেমি. প্রশস্ত ও ৩০ সেমি. গভীর হওয়া বাঞ্চনীয়। চারা গজানোর পর প্রতি মাদায় দুটি করে চারা রেখে বাকিগুলো তুলে ফেলতে হবে।&nbsp;চারা রোপণবীজ বপণের চেয়ে তরমুজ চাষের জন্য চারা রোপণ করা উত্তম। এতে বীজের অপচয় কম হয়। চারা তৈরির জন্য ছোট ছোট পলিথিনের ব্যাগে বালি ও পচা গোবর সার ভর্তি করে প্রতি ব্যাগে একটি করে বীজ বপন করা হয়। ৩০-৩৫ দিন বয়সের ৫-৬ পাতাবিশিষ্ট একটি চারা মাদায় রোপণ করা হয়।বীজের পরিমাণপ্রতি হেক্টরে ৮৫০-১ হাজার গ্রাম বীজের প্রয়োজন হয়।সার প্রয়োগ&nbsp;তরমুজের জমিতে নিম্নোক্ত হারে সার প্রয়োগ করা যেতে পারে-সার&nbsp;&nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp;&nbsp; &nbsp; মোট পরিমাণ&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;মাদা তৈরি&nbsp;&nbsp;&nbsp; &nbsp;&nbsp;পরবর্তী পরিচর্যা&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; (হেক্টর প্রতি) &nbsp;&nbsp; &nbsp;&nbsp;কালে&nbsp;দেয়&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;হিসাবে&nbsp;মাদায় দেয়&nbsp;&nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;১ম কিস্তি&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp; &nbsp; &nbsp;&nbsp; &nbsp;&nbsp;২য় কিস্তি&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp; &nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;৩য় কিস্তি &nbsp; &nbsp; &nbsp;&nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp; &nbsp;&nbsp;৪র্থ কিস্তি(চারা রোপণের ১০-১৫ দিন পর)&nbsp; (প্রথম ফুল ফোটার সময়)&nbsp;(ফল ধারণের সময়)&nbsp;(ফল ধারণের ১৫-২০ দিন পর)গোবর/কম্পোস্ট&nbsp;&nbsp; ২০ টন&nbsp;&nbsp; &nbsp;সব&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-ইউরিয়া&nbsp;&nbsp; &nbsp;&nbsp; ২৮০ কেজি&nbsp; &nbsp;&nbsp; -&nbsp;&nbsp; &nbsp;১০০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৬০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৬০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৬০ কেজিটিএসপি&nbsp; &nbsp;&nbsp; ১০০ কেজি &nbsp;&nbsp; &nbsp; সব&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-&nbsp;&nbsp; &nbsp;-এমপি&nbsp; &nbsp; &nbsp; ৩২০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp; -&nbsp;&nbsp; &nbsp;৮০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৮০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৮০ কেজি&nbsp;&nbsp; &nbsp;৮০ কেজিবীজের অঙ্কুরোদগম&nbsp;শীতকালে খুব ঠাণ্ডা থাকলে বীজ ১২ ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে গোবরের মাদার ভেতরে কিংবা মাটির পাত্রে রক্ষিত বালির ভেতরে রেখে দিলে ২-৩ দিনের মধ্যে বীজ অঙ্কুরিত হয়। বীজের অঙ্কুর দেখা দিলেই বীজ তলায় অথবা মাদায় স্থানান্তর করা ভালো।অন্তর্বর্তীকালীন পরিচর্যাশুকনো মৌসুমে সেচ দেয়া খুব প্রয়োজন। গাছের গোড়ায় যাতে পানি জমে না থাকে সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। প্রতিটি গাছে ৩-৪টির বেশি ফল রাখতে নেই। গাছের শাখার মাঝামাঝি গিটে যে ফল হয় সেটি রাখতে হয়। চারটি শাখায় চারটি ফলই যথেষ্ট। এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে যে ৩০টি পাতার জন্য মাত্র একটি ফল রাখা উচিত।পরাগায়নসকালবেলা স্ত্রী ও পুরুষ ফুল ফোটার সাথে সাথে স্ত্রী ফুলকে পুরুষ&nbsp; ফুল দিয়ে পরাগায়িত করে দিলে ফলন ভালো হয়।&nbsp;পোকামাকড় ও রোগবালাই পাতার বিটল পোকা প্রথম দিকে পোকাগুলোর সংখ্যা যখন কম থাকে তখন পোকা ডিম ও বাচ্চা ধরে নষ্ট করে ফেলতে হবে। পোকার সংখ্যা বেশি হলে রিপকর্ড/সুমিথিয়ন/ম্যালাথিয়ন ৫৭ ইসি ১ মিলি/লিটার মাত্রায় সপ্তাহান্তে স্প্রে করতে হবে।&nbsp;জাব পোকাএ পোকা গাছের কচি কাণ্ড, ডগা ও পাতার রস শুষে খেয়ে ক্ষতি করে। এ পোকা দমনের জন্য সুমিথিয়ন/ম্যালাথিয়ন ৫৭ ইসি ২ মিলি/লিটার মাত্রায় স্প্রে করতে হবে।&nbsp;মাজরা পোকাস্ত্রী পোকা ফলের খোসার নিচে ডিম পাড়ে। ডিম ফুটে কীড়াগুলো বের হয়ে ফল খেয়ে নষ্ট করে ফেলে এবং ফলগুলো সাধারণত পচে যায়। এপোকা দমনের জন্য রিপকর্ড/সুমিথিয়ন/ম্যালাথিয়ন ৫৭ ইসি ১ মিলি/লিটার মাত্রায় স্প্রে করতে হবে।কাণ্ড পচা রোগএ রোগের আক্রমণে তরমুজ গাছের গোড়ার কাছের কাণ্ড পচে গাছ মরে যায়। প্রতি কারের জন্য ২.৫ গ্রাম ডাইথেন এম-৪৫ প্রতি ১ লিটার পানেতে মিশিয়ে ১০-১৫ দিন পর পর গাছে স্প্রে করতে হবে।&nbsp;ফিউজেরিয়াম উইল্ট রোগএ রোগের আক্রমণে গাছ ঢলে পড়ে মারা যায়। নিষ্কাশনের সুব্যবস্থা করা হলে এ রোগের প্রকোপ কম থাকে। রোগাক্রান্ত গাছ তুলে পুড়িয়ে ফেরতে হবে।&nbsp;ফসল সংগ্রহজাত ও আবহাওয়ার ওপর নির্ভর করে তরমুজ পাকে। সাধারণত ফল পাকতে বীজ বোনার পর থেকে ৮০-১১০ দিন সময় লাগে। তরমুজের ফল পাকার সঠিক সময় নির্নয় করা একটু কঠিন। কারণ অধিকাংশ ফলে পাকার সময় কোনো বাহ্যিক লক্ষণ দেখা যায় না। তবে নীচের লক্ষণগুলো দেখে তরমুজ পাকা কি না তা অনেকটা&nbsp; অনুমান করা যায়।<ul style="margin-bottom: 20px; list-style-type: disc; list-style-position: initial;"><li style="margin-bottom: 8px; margin-left: 20px; font-size: 14px; line-height: 18px;">&nbsp;ফলের বোঁটার সঙ্গে যে আকর্শি থাকে তা শুকিয়ে বাদামি রং হয়।</li><li style="margin-bottom: 8px; margin-left: 20px; font-size: 14px; line-height: 18px;">খোসার উপরে সূক্ষ লোমগুলো মরে পড়ে গিয়ে তরমুজের খোসা চকচকে হয়।</li><li style="margin-bottom: 8px; margin-left: 20px; font-size: 14px; line-height: 18px;">&nbsp;তরমুজের যে অংশটি মাটির ওপর লেগে থাকে তা সবুজ থেকে উজ্জল হলুদ রংঙের হয়ে ওঠে।</li><li style="margin-bottom: 8px; margin-left: 20px; font-size: 14px; line-height: 18px;">তরমুজের শাঁস লাল টকটকে হয়।</li><li style="margin-bottom: 8px; margin-left: 20px; font-size: 14px; line-height: 18px;">আঙ্গুল দিয়ে টোকা দিলে যদি ড্যাব ড্যাব শব্দ হয় তবে বুঝতে হবে যে ফল পরিপক্কতা লাভ করেছে। অপরিপক্ব ফলের বেলায় শব্দ হবে অনেকটা ধাতবীয়।</li></ul>ফলনসযত্নে চাষ করলে ভালো জাতের তরমুজ থেকে প্রতি হেক্টরে ৫০-৬০ টন ফলন পাওয়া যায়।(AIS)

swakshar chandra banik জানতে চেয়েছেন
০৭/০২/২০১৯ ইং কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, শিবপুর, নরসিংদী
dhaner blast disease er protikar
সৈয়দা সিফাত জাহান উত্তর দিয়েছেন
০৯-০৭-২০১৯ ইং অতিরিক্ত কৃষি অফিসার

he primary control option for blast is to plant resistant varieties. Contact your local agriculture office for up-to-date lists of varieties available. Other crop management measures can also be done, such as: <ul><li>Adjust planting time. Sow seeds early, when possible, after the onset of the rainy season.</li><li>Split nitrogen fertilizer application in two or more treatments. Excessive use of fertilizer can increase blast intensity.</li><li>Flood the field as often as possible.</li></ul> Silicon fertilizers (e.g., calcium silicate) can be applied to soils that are silicon deficient to reduce blast. However, because of its high cost, silicon should be applied efficiently.&nbsp;Cheap sources of silicon, such as straws of rice genotypes with high silicon content, can be an alternative.&nbsp;Care should be taken to ensure that the straw is free from blast as the fungus can survive on rice straw and the use of infected straw as a silicon source can spread the disease further. Systemic fungicides like triazoles and strobilurins can be used judiciously for control to control blast. A fungicide application at heading can be effective in controlling the disease

দেশজ কৃষি

আরো দেখুন
আমের ফুল ও ফল ঝরা রোধের উপায় ও সার ব্যবস্থাপনা
আমের ফুল ও ফল ঝরা রোধের উপায় ও সার ব্যবস্থাপনা
Bijoy kumer halder, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, নাঙ্গলকোট, কুমিল্লা

আম হচ্ছে বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফল। আমকে তাই ফলের রাজা বলা হয়। আমের মুকুল আসা ও ফল ধরার সময়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কাঙ্খিত ফলন পেতে এ সময় যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া অপরিহার্য। কেননা সঠিক...

কৃষকদের কাছ থেকে আরও আড়াই লাখ টন ধান কিনবে সরকার
কৃষকদের কাছ থেকে...
Papia Rahman Moury
মেট্রোপলিটন কৃষি অফিসার, রাজশাহী

এখনকার করনীয়

আরো দেখুন

‘ফণী’ মোকাবেলায় সর্বোচ্চ...

ঘুর্নিঝড় ‘ফনী’ মোকাবেলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে...

Novel Coronavirus (COVID-19) Situation

Basic protective measures against the new coronavirusStay aware...

DAE Official ID Card Form

DAE Official ID Card FormDAE Official ID Card Form Link: https://forms.gle/QkjVpR3BKxnigYpCAতথ্য পূরণের Google ফরম এর লিংক সকল অতিরিক্ত...

“FANI”:THE VERY SEVERE CYCLONIC STORM

The government is taking all kinds of preparatory measures to tackle cyclone 'Fani'. As part of that, the authorities have canceled movement of all kind water vessels the inland river route of...

উদ্ভাবন

আরো দেখুন
অপার সম্ভাবনাময় ঢেমসি
অপার সম্ভাবনাময় ঢেমসি
Md. Al Mamun ur rashid, উপজেলা কৃষি অফিসার, বোদা, পঞ্চগড়

ঢেমসি যার ইংরেজি নাম Buck Wheat যা একটি দানাদার ফসল। ইহার চাল এবং আটাতে রয়েছে অতিমাত্রায় প্রোটিন, মিনারেল এবং ফাইবার যাহা আমাদের উত্তম খাদ্য। আরো রয়েছে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ,...

ব্রি ধান ৪৯ রোপা আমনে বআির ১১ এর বকিল্প উফশী জাত(ব্রি ধান ৪৯ যার চাল নাইজারশাইলরে মতো)
ব্রি ধান ৪৯ রোপা...
Md. Tofique Al Zubair
কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, মহাদেবপুর, নওগাঁ
Summer Tomato Cultivation
Summer Tomato Cultivation
কৃষিবিদ মোঃ সোহরাব হোসেন
কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, গাবতলী, বগুড়া
নিরাপদ সবজি
নিরাপদ সবজি
Md. Bahauddin Shaik
রাজবাড়ী সদর, রাজবাড়ী

চলতি ফসল

আরো দেখুন
হাওরে ধানের ঝুঁকি কমাতে আগাম জাতের ধানের চাষে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে: কৃষিমন্ত্রী
হাওরে ধানের ঝুঁকি...
Azam Uddin, প্রোগ্রামার,

কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, হাওরে পর্যাপ্ত পরিমাণ ধান হয়, যা দেশের খাদ্য...

আমের রোগবালাই
আমের রোগবালাই
Md. Nure Alam, উপজেলা কৃষি অফিসার, শাজাহানপুর, বগুড়া

আমে তিনবার স্প্রে

সফলভাবে বোরো ধান ঘরে তুলতে পারলে খাদ্যের কোন সংকট হবে না: কৃষিমন্ত্রী
সফলভাবে বোরো ধান ঘরে...
Azam Uddin, প্রোগ্রামার,

সফলভাবে বোরো ধান ঘরে তুলতে পারলে খাদ্যের কোন সংকট হবে না: কৃষিমন্ত্রীসারা দেশের বোরো ধান সফলভাবে...

আগামীর কৃষি

আরো দেখুন
ছাদ বাগানে টবে ড্রাগন ফল চাষ পদ্ধতি
ছাদ বাগানে টবে ড্রাগন ফল চাষ পদ্ধতি
কল্পনা রহমান, উপজেলা কৃষি অফিসার, পটিয়া, চট্টগ্রাম

ছাদ বাগানে টবে ড্রাগন ফল চাষ পদ্ধতিড্রাগন ফল মূলত আমেরিকার প্রসিদ্ধ একটি ফল যা বর্তমানে আমাদের দেশেও ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। আমাদের দেশে সর্বপ্রথম ২০০৭ সালে থাইল্যান্ড, ফ্লোরিডা ও...

পুদিনা- ছাদে এক সম্ভাবনা
পুদিনা- ছাদে এক...
কল্পনা রহমান
উপজেলা কৃষি অফিসার, পটিয়া, চট্টগ্রাম
চুইঝাল কৃষির নতুন সেনসেশন
চুইঝাল কৃষির নতুন...
মোঃ মাশরেফুল আলম
উপজেলা কৃষি অফিসার, জামালগঞ্জ, সুনামগঞ্জ

সাফল্যগাথা

আরো দেখুন